Posts

Showing posts from October, 2011

বাংলাদেশের আখাউড়া সীমান্ত পথে ভারতের ট্রানজিট শুরু ১৯ শে অক্টোবর ২০১১ থেকে

বাংলাদেশের আখাউড়া সীমান্ত পথে ভারতে নিয়মিত পণ্য পরিবহন ১৯শে অক্টোবর  থেকে শুরু হচ্ছে



বাংলাদেশী মালিকানাধীন ইন্দোবাংলা শিপিং লাইনস লিমিটডের জাহাজে করে কোলকাতা থেকে ৬২১ মেট্রিক টন রডের কাঁচামাল ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জ নৌবন্দর এসে পৌছায় গত মাসের শেষ দিকে ।

এরপর সেগুলো বাংলাদেশের ট্রাকে করে নিয়ে আসা হয় আখাউড়া স্থল বন্দরে।



জাতীয় রাজস্ব বোর্ড বা এনবিআর চেয়ারম্যান নাসির উদ্দিন আহমেদ জানান পণ্য পরিবহনের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হচ্ছে ট্রানজিট প্রক্রিয়া৻ ব্যাংক গ্যারান্টির মাধ্যমে এসব পণ্য পরিবহন করা হলেও কোনো ধরনের মাশুল নেয়া হচ্ছে না।

কেন মাশুল নেযা হচ্ছে না জানতে চাইলে তিনি বলেন, দুদেশের মধ্যে নৌ প্রটোকলের আওতায় এসব পন্য পরিবহন করা হচ্ছে।

এক্ষেত্রে যে সড়কপথও ব্যবহার হচ্ছে সে বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে তিনি বলেন, ভবিষ্যতে এই চুক্তি সংশোধন হলে মাশুল নেয়া হতে পারে।

তবে নৌসচিব মো আবাদুল মান্নান হাওলাদার মনে করেন, মাশুল নেয়া না হলেও, এর মাধ্যমে বাংলাদেশের শিপিং এজেন্ট কিংবা শ্রমিকরা লাভবান হচ্ছে। সেই সাথে বাংলাদেশের ট্রাক ওগুলো পরিবহন করার কাজে নিয়োজিত থাকায় তারাও লাভবান হচ্ছে৻

এদিকে আখাউড়া স্থলবন্…

রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে রাজি হয়েছে মায়ানমার

ঢাকায় পররাষ্ট্র মন্ত্রনালয়ে অনুষ্ঠিত নিয়মিত এক ব্রিফিং এ পররাষ্ট্র সচিব মিজারুল কায়েস বলেন, বাংলাদেশ সরকার জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক সংস্থা বা ইউএনএইচসিআর ও বার্মার সরকারের সাথে শরণার্থীদের ফিরিয়ে নেয়ার বিষয়ে উদ্যোগ জোরালো করেছে।কর্মকর্তারা বলছেন, বার্মার নির্বাচিত সরকার বাংলাদেশে অবস্থানকারী রোহিঙ্গা শরণার্থীদের ফিরিয়ে নিতে রাজী হয়েছে।

তিনি জানান, সম্প্রতি দু‘দেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রনালয়ের সচিব পর্যায়ের বৈঠকেও এ বিষয়টি আলোচিত হয়। মি. কায়েস বলছেন, প্রতিবেশী দুটো দেশের সম্মতির ভিত্তিতে সমঝোতা হলে সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন সহজ হবে। এবং বার্মা এ ব্যাপারে রাজী হয়েছে।

বর্তমানে কক্সবাজারের নয়াপাড়া এবং কুতু পালং শিবিরে ২৮,০০০ শরণার্থী রয়েছে বলে জানান মি. কায়েস।

তিনি বলেন, বৈধ শরণার্থীদের বাইরেও অনেক অবৈধ অনুপ্রবেশকারী বার্মা থেকে বাংলাদেশে এসেছেন যাদের মানবিক কারণে ফিরিয়ে দেয়া হয়নি।

পররাষ্ট্র সচিব অবশ্য তাদের সঠিক সংখ্যা বলেননি।

তিনি জানান, দুই দেশের অভিন্ন সীমান্তে মাদক পাচার ও অবৈধ অনুপ্রবেশ ঠেকাতে দুই দেশের সীমান্তরক্ষী বাহিনীর সদস্যদের যৌথ টহলের বিষয়ে এক প্রস্তাব নিয়েও তারা আলোচনা করেছেন।

পররাষ্ট্র সচি…

২০১১ সালের ইকোনোমিস্ট এর প্রতিবেদন ও বাংলাদেশ ভারত সম্পর্কের রুপ রেখা

Image
বাংলাদেশ সরকার ব্রিটিশ সাময়িকী দ্য ইকোনমিস্ট-এর এক প্রতিবেদনের প্রতিবাদ করে একটি বিবৃতি দিয়েছে৻

দ্য ইকোনমিস্ট-এর ৩০ জুলাই সংখ্যায় এক প্রতিবেদনে ভারতের সাথে বাংলাদেশের সম্পর্ক নিয়ে কিছু নেতিবাচক বক্তব্য তুলে ধরা হয়েছে৻

প্রতিবেদনে রাষ্ট্র পরিচালনায় ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের বিচক্ষণতা নিয়েও প্রশ্ন তোলা হয়েছে৻

বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় তার চিঠিতে এই সাময়িকীর বিরুদ্ধে কুৎসা রটনার অভিযোগ আনলো৻

চিঠিতে বলা হয়েছে তাদের প্রতিবেদনটিতে ভুল তথ্য এবং তথ্যের ভুল ব্যাখ্যা রয়েছে৻

আওয়ামী লীগ ২০০৮ সালে নির্বাচনে জয়লাভ করার সময় ‘‘ব্যাগ-ভর্তি ভারতীয় টাকা‘‘ আর উপদেশের সাহায্য পায় বলে যে কথা দ্য ইকোনমিস্ট বলেছে, বাংলাদেশ সরকার তাকে নির্ভেজাল মিথ্যা বলে অভিহিত করেছে৻

বিশ্বজুড়ে দ্য ইকোনমিস্ট ম্যাগাজিনটি সোজা-সাপ্টা কথা বলার জন্য পরিচিত৻

বাংলাদেশ ও ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

সে জন্য পৃথিবীর বিভিন্ন দেশের রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক এবং নিরাপত্তা-বিষয়ক নীতি-নির্ধারকরা এই সাময়িকীতে প্রকাশিত তথ্য এবং বিশ্লেষণ বেশ গুরুত্বের সাথে নেন৻

সাময়িকীতে বর্তমান সময়ে বাংলাদেশে অভূতপূর্ব দুর্নীতির যে কথা বলা হয়েছে, তা খন্ডন করে বাংলাদেশের পর…