• Bangladesh Defence Power

    বাংলাদেশের সামরিক বাহিনীর দক্ষতা এবং মিলিটারি স্ট্রেটেজির কারনে জাতিসংঘের সবচেয়ে বড় শান্তি রক্ষা মিশনে তাদের ডাকা হয় । হয়ত আমাদের নেই পারমানবিক শক্তি কিংবা অত্যাধুনিক অস্ত্র শস্ত্র নেই , কিন্তু চেতনায় অনুপ্রাণিত এই সামরিক বাহিনীর সাথে কোন দাদাগিরি করার চরম মাশুল দিতে হবে যে কোন পরাশক্তিকে । কারন বাংলাদেশ কে গত হাজার বৎসরে কেউ দাবিয়ে রাখতে পারেনি , পারবেওনা ।

  • Sheikh Mujibur Rahman - Father Of The Nation

  • মাননিয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

    নিউজ আপডেট.

Wednesday, May 23

১০ দিনে ক্রসফায়ারে ৩৮ জন ইয়াবা ব্যাবসায়ি - মাদক নির্মূলে র‍্যাব ইন একশন




৩ মে প্রধানমন্ত্রী মাদকের বিরুদ্ধে র‍্যাবকে সোচ্চার হওয়ার কথা বলার পর থেকে ৪ মে থেকে ১৩ মে বিশেষ অভিযান শুরু করে র‍্যাব। গত দশ দিনে  নে র‍্যাব ৩ হাজার জন মাদকসেবীদের বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড দিয়েছে। ২০ লাখের বেশি টাকা জরিমানা করেছে। প্রায় ১৫ কোটি টাকা মূল্যের মাদক আটক করেছে। ৩৮১ জনের বিরুদ্ধ মামলা করা হয়েছে।

এর আগে র‍্যাবের মহাপরিচালক বেনজীর আহমেদ ১৪ মে ঢাকায় সংবাদ সম্মেলন করে মাদক কেনাবেচায় জড়িত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে কঠোরতম আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার হুঁশিয়ারি দেন







মাদকসেবী ও ব্যবসায়ীদের মাদক সেবন না করা ও ব্যবসা না করার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন
,
‘আমরা চাইব, যাঁরা মাদক সেবন করবেন, তাঁরা আর মাদক নেবেন না, যারা ব্যবসা করেন তারা মাদক বিক্রি বন্ধ করবেন।’ কারও কাছে মাদক থাকলে তা র‍্যাবের ক্যাম্পের পাশে ফেলে যাওয়ার অনুরোধ করে তিনি বলেন, ‘ফেলে রেখে এলে আমরা তা সহজেই ধ্বংস করতে পারব।’ মাদকের হাত থেকে নিস্তার পেতে সবাইকে একসঙ্গে কাজ করার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, 




প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে চলছে মাদক নির্মূল অভিযান - কাজ করছে র‍্যাব




র‍্যাবের ১৪ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে ৩ মে ২০১৮   প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন,  


‘আমি র‌্যাবকে অনুরোধ করব, জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে যেমন আমরা অভিযান চালিয়ে সাফল্য অর্জন করতে সক্ষম হয়েছি, তেমনি এখন মাদকের বিরুদ্ধেও এই অভিযান অব্যাহত রাখতে হবে"

  এর পর থেকে  র‍্যাব ও পুলিশের হাতে ক্রসফায়ারে মারা গেছে  ৩৭ জন মাদক ব্যাবসায়ি । শেখ হাসিনা বলেন, মাদকবিরোধী অভিযানে ইতিমধ্যেই যথেষ্ট সাফল্য অর্জিত হয়েছে। তিনি বলেন, ‘আমাদের ছেলেমেয়েরা যাতে এর ছোবল থেকে দূরে থাকতে পারে, তার ব্যবস্থা ব্যাপকভাবে নিতে হবে।’

তিনি ইতিমধ্যেই ইয়াবা চোরাচালান প্রতিরোধে নাফ নদীতে মাছ ধরা বন্ধ রাখতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দিয়েছেন। ওই নদীতে মাছ ধরা নৌকায় করে ইয়াবা পাচার হয়। এ নিয়ে মিয়ানমার সরকারের সঙ্গে আলোচনা চলছে



মাদক ইস্যুতে কাউকে ছাড় দেব না:স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী






চলমান মাদকবিরোধী অভিযানের এর ব্যাপারে মঙ্গলবার সচিবালয়ে নিজ দফতরে সাংবাদিকদের কথা বলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। এ সময় মাদকের বিষয়ে জিরো টলারেন্স নীতি ঘোষণা করেন মন্ত্রী। আর বন্দুকযুদ্ধ নিয়ে ওঠা প্রশ্নে তিনি বলেন, চলমান মাদকবিরোধী অভিযানে বন্দুকযুদ্ধই হচ্ছে।




কক্সবাজারের সরকারদলীয় সংসদ সদস্য আবদুর রহমান বদি তার বিরুদ্ধে মাদক ব্যবসায় সংশ্লিষ্টতার
অভিযোগ অনেক দিনের। বর্তমানে চলমান মাদকবিরোধী অভিযানের ফলে তার নাম পুনরায় আলোচনায় এসছে। সংবাদ মাধ্যম, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম সব জায়গায় তাকে নিয়ে সমলোচনার ঝড় বইছে।


সাংবাদিকরা মন্ত্রীর কাছে সরকারদলীয় সংসদ সদস্য আবদুর রহমান বদির বিরুদ্ধে অভিযোগ এর বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমরা কাউকেই ছাড় দিচ্ছি না। সে বদি হোক আর যেই হোক। সঠিক প্রমাণাদি আমরা যার বিরুদ্ধে পাচ্ছি আমরা তাকেই গ্রেফতার করছি। আমি আপনাকে নিশ্চয়তা দিতে পারি, সে সংসদ সদস্য হোক আর যেই হোক। তথ্য যেসব আসছে আমরা প্রমাণাদি জোগাড় না করে নক করছি না। আপনাদের কাছে যদি প্রমাণ থাকে পাঠিয়ে দিন। শুধু তার নয়, যে কারও বিরুদ্ধে যদি প্রমাণ থাকে আপনারা আমাদের কাছে পাঠান। আমাদের কাছে যাদের তথ্য-প্রমাণ আছে তাদের বিরুদ্ধে আমরা ব্যবস্থা নিচ্ছি।



সংসদীয় কমিটির গড়া মাদক ব্যবসায়ীদের তালিকায় বদির নাম থাকা প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, আপনারা শুনে শুনে কথা বলছেন, অনুমানভিত্তিক কথা বলছেন। আর আমরা তথ্য-প্রমাণভিত্তিক দেখছি। আমি আপনাদের নিশ্চয়তা দিতে পারি, আমরা তথ্য-প্রমাণভিত্তিক কাজ করছি।

মন্ত্রী বলেন, ‘ম্যাসেজ ইজ ভেরি ক্লিয়ার। আমাদের প্রধানমন্ত্রীর পরিষ্কার নির্দেশনা যে, এ ব্যাপারে জিরো টলারেন্স। সংসদ সদস্য হোক, সরকারি কর্মকর্তা হোক, আমাদের নিরাপত্তা বাহিনীর কর্মকর্তা হোক, ইভেন সাংবাদিক- কাউকে ছাড় দেব না। আমাদের কাছে যে তথ্য আছে সেই তথ্য অনুযায়ী অপারেশন চলছে, সে বদি হোক কিংবা যেই হোক। আমি ক্লিয়ার করে বলেছি, এরপর আর কোনো প্রশ্ন থাকতে পারে না।’

মাদকে জড়িত পুলিশের বিরুদ্ধে কী ব্যবস্থা? মন্ত্রী বলেন, পুলিশ প্রধান এটা ব্যবস্থা নেবেন। যদি তিনি মনে করেন আইনের আশ্রয় নেয়া উচিত, নেবেন। আর যদি মনে করেন বিভাগীয় ব্যবস্থা, তবে তাই হবে।



দেশব্যাপী চলমান মাদকবিরোধী অভিযানে বন্দুকযুদ্ধ প্রসঙ্গে আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, ‘এসব অপরাধীকে ধরতে গেলে তারা পুলিশের ওপর চড়াও হয়ে আগ্নেয়াস্ত্র ব্যবহার করছে, তখন আইনশৃঙ্খলা বাহিনী আত্মরক্ষার্থে বাধ্য হয়েই তাদের মেরেছে। গোয়েন্দা তথ্য অনুযায়ী হাই প্রোফাইলের যারা মাদকের ব্যবসা করেন তাদের যখনই ধরতে গিয়েছি হয় তারা পালিয়েছে, নয়তো তারা আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সঙ্গে যুদ্ধে লিপ্ত হয়েছে। তখন আইনশৃঙ্খলা বাহিনী আত্মরক্ষার্থে যা করার তারা তাই করছে।

গেল কয়েক দিনে বেশ কিছু মাদক ব্যবসায়ী মারা যাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। আর এসব মাদক ব্যবসায়ীর কাছে আধুনিক সব ধরনের আগ্নেয়াস্ত্র থাকে। এসব অস্ত্র পুলিশের বিরুদ্ধে ব্যবহারের চেষ্টা করেছে। ফলে এ ধরনের মৃত্যুর ঘটনা ঘটছে। আমরা পরিষ্কার বলছি, আমরা কারও বিরুদ্ধে বন্দুকযুদ্ধে যাচ্ছি না। যারা ফায়ার ওপেন করে তাদের বিরুদ্ধে নিরাপত্তা বাহিনী অ্যাকশন নিচ্ছে। গেল সাত বা আট দিনে শুধু মৃত্যুর ঘটনা নয়, প্রায় দুই হাজারেও অধিক গ্রেফতার হয়েছে।

শুধুমাত্র মাদক বাহকদের হত্যা করা হচ্ছে কিনা- এমন প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, আমরা গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে শুধু বাহক নয় বরং প্রকৃত মাদক ব্যবসায়ীদের ধরার চেষ্টা করছি। এ ক্ষেত্রে আমাদের মোবাইল কোর্টও চলছে। সেখানে বিভিন্ন মেয়াদে শাস্তিও হচ্ছে। আমরা কাউকে ছাড় দিচ্ছি না।

১৪টি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তিতে সতর্কতা



আগামী ২২ ই জুন এইচএসসি পরীক্ষার ফল প্রকাশের সম্ভাব্য তারিখ। এই পরীক্ষার ফল প্রকাশের আগে ‘ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের জন্য কয়েকটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের বর্তমান অবস্থা’ জানিয়ে মঙ্গলবার একটি বিজ্ঞপ্তি দিয়েছে ইউজিসি।

এতে বলা হয়েছে, “কেউ অনুমোদনবিহীন কোনো বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় বা অনুমোদিত বিশ্ববিদ্যালয়ের অননুমোদিত ক্যাম্পাস বা অননুমোদিত কোনো প্রোগ্রাম বা কোর্সে ভর্তি হলে তার দায়-দায়িত্ব শিক্ষা মন্ত্রণালয় বা ইউজিসি নেবে না।”

বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির ক্ষেত্রে সরকার ও বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন অনুমোদিত বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুমোদিত ক্যাম্পাস ও প্রোগামে ভর্তি হতে পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য যে, বাংলাদেশে বর্তমানে ১০১টি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের সরকারি অনুমোদন আছে। এর মধ্যে শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে ৯১টি বিশ্ববিদ্যালয়ে।

৯১টি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালিত হলেও এর মধ্যে ৬০টিতে উপাচার্য, ২০টিতে উপ-উপাচার্য এবং ৪৪টিতে কোষাধ্যক্ষ রয়েছে। বাকিগুলোতে শীর্ষ পদ ফাঁকা রেখেই চলছে শিক্ষা কার্যক্রম।

বিজ্ঞপ্তিতে ইউজিসি বলছে, ১৪ বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে


  1. ইবাইস ইউনিভার্সিটি, 
  2. সিলেট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি,
  3.  ব্রিটানিয়া বিশ্ববিদ্যালয়, 
  4. প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটি 
  5. ও সাউদার্ন ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ
  6. দারুল ইহসান বিশ্ববিদ্যালয়
  7.  আমেরিকা বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি 
  8. ইউনিভার্সিটি অব কুমিল্লা
  9. গণ বিশ্ববিদ্যালয়ে
  10. ইউনিভার্সিটি অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজির 
  11.  দি পিপলস ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশের




, এই ৫ বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাস্টি বোর্ড নিয়ে দ্বন্দ্ব এবং আদালতে মামলা চলছে। উচ্চ আদালতের রায়ের প্রেক্ষিতে বন্ধ করা হয়েছে । এছাড়া কুইন্স বিশ্ববিদ্যালয়কে সরকার বন্ধ করে দিলেও ২০১৫ সালের ৬ সপ্টেম্বর শর্ত সাপেক্ষে এক বছরের জন্য শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনার অনুমতি দেয়। কিন্তু ওই সময়ের মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়টি শিক্ষা কার্যক্রম শুরু করতে পারেনি।
 আমেরিকা বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি
২০০৬ সালে বন্ধ ঘোষণার পরও আদালত থেকে স্থগিতাদেশ নিয়ে ক্যাম্পাস পরিচালনা করে আসছিল। পরে উচ্চ আদালতের অন্তর্বর্তীকালীন রায়ে নতুন করে ক্যাম্পাস পরিচালনার অনুমতি দিলেও ইউজিসি পরিদর্শনে গিয়ে দেখতে পায়, সেখানে শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনার কোনও সুযোগ-সুবিধা নেই। ফলে এই বিশ্ববিদ্যালয়ের সব অবৈধ ক্যাম্পাস উচ্ছেদ করতে সরকারের সংশ্লিষ্ট দপ্তরকে অনুরোধ করা হয়েছে। এছাড়া ইউনিভার্সিটি অব কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়টি সরকার বন্ধের ঘোষণা করলেও উচ্চ আদালত থেকে স্থগিতাদেশ নিয়ে কার্যক্রম পরিচালনা করছে। যদিও ইউজিসি এর বিরুদ্ধে আপিল করেছে। এছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়টি নিয়ে দুটি মামলা আদালতে বিচারাধীন আছে। অন্যদিকে গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের অননুমোদিত প্রোগ্রামে শিক্ষার্থী ভর্তি না হওয়ার জন্য কমিশন ২০১৭ সালের ২৬ এপ্রিল পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ওই বিজ্ঞপ্তির বিরুদ্ধে রিট করলে ২০১৭ সালের ২৯ মে আদালত গণ বিশ্ববিদ্যালয়ে বিবিএ, ইনভায়রনমেন্ট সায়েন্স, এমবিবিএস, বিডিএস এবং ফিজিওথেরাপি গ্রোগ্রামে শিক্ষার্থী ভর্তি আমলে নিতে ইউজিসিকে নির্দেশনা দেয়।

এছাড়া ইউনিভার্সিটি অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজির চট্টগ্রামের ক্যাম্পাসকে অনুমোদিত স্থায়ী ক্যাম্পাস বলা হলেও রাজধানীর ধানমণ্ডিতে অননুমোদিত আউটার ক্যাম্পাস রয়েছে। যদিও গত ১৫ মে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ এক চিঠিতে এই আউটার ক্যাম্পাস বন্ধ করা হয়েছে বলে জানিয়েছে। দি পিপলস ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশের নরসিংদীতে স্থায়ী এবং রাজধানীর মোহাম্মদপুরে অস্থায়ী ক্যাম্পাস রয়েছে বললেও ঢাকার উত্তরায় অননুমোদিত একটি ক্যাম্পাস রয়েছে। ইউনিভার্সিটি অব সাউথ এশিয়ার অনুমোদিত অস্থায়ী ক্যাম্পাস রয়েছে বনানীর বি ব্লকে। অথচ বনানীর সি ব্লকে একটি অননুমোদিত ক্যাম্পাস রয়েছে। অতীশ দীপঙ্কর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিদ্যালয়ের উত্তরা ১৫ নম্বর সেক্টরে অনুমোদিত স্থায়ী ক্যাম্পাস রয়েছে। অথচ উত্তরার ১২ নম্বর সেক্টর এবং সোনারগাঁও রোডে দুটি অননুমোদিত আউটার ক্যাম্পাস রয়েছে।


http://www.ugc.gov.bd/uploads/2018/noticeboard/Private_22_05_2018.pdf


ভারতে পরিবেশ আন্দোলনকারীদের পুলিশের গুলিঃ নিহত ১০





ভারতের দক্ষিণাঞ্চলীয় রাজ্য তামিলনাড়ুতে একটি কপার কারখানা বন্ধের দাবিতে আয়োজিত বিক্ষোভে গুলি চালায় পুলিশ। এতে দুই নারীসহ ১০জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন ৬৫জন।। বার্ষিক চার লাখ টন কপার উৎপাদনে সক্ষম কারখানাটি বিক্ষোভের কারণে ৫০ দিনেরও বেশি সময় ধরে বন্ধ রয়েছে।

মঙ্গলবার জেলা প্রশাসনের সদর দফতর ও বেদান্ত রিসোর্চের কর্মচারীদের এপার্টমেন্ট ভবনের বাইরে কালো পতাকা প্রদর্শনের সময় বিক্ষোভকারীদের ওপর গুলি বর্ষণ করে পুলিশ। রাজ্যের পুলিশ কর্মকর্তা কপিল কুমার সরকার রয়টার্সকে বলেছেন, বিক্ষোভকারীরা যানবাহনে অগ্নিসংযোগ ও পুলিশের ওপর পাথর নিক্ষেপ করলে গুলি ছুঁড়তে বাধ্য হয় পুলিশ।




 স্থানীয়দের অভিযোগ এই বড় কপার কারখানাটি পরিবেশ দূষণ ও মৎস সম্পদকে ঝুঁকির মুখে ফেলছে।





স্থানীয় টেলিভিশনের খবরে দেখানো হয়েছে বিক্ষোভকারীদের ওপর টিয়ার গ্যাস ও পানি ছিটিয়ে ছত্রভঙ্গ করার চেষ্টা করছে পুলিশ। রাজ্যের মন্ত্রী ডি জয় কুমার টেলিভিশনে প্রচারিত বক্তব্যে বলেছেন,  মঙ্গলবার বিক্ষোভকারীদের ওপর পুলিশ যে গুলি চালিয়েছে তা এড়ানোর কোনও উপায় ছিল না।

উল্লেখ্য যে, ভারতের পরিবেশ আদালতের রায়ে ২০১৩ একবার দুই মাসেরও বেশি সময় বন্ধ ছিল বেদান্ত রিসোর্চ কোম্পানির মালিকানাধীন কারখানাটি। পরে সচল হলেও পরিবেশবাদী ও স্থানীয় রাজনীতিবিদদের একাংশ  কারখানাটি স্থায়ীভাবে বন্ধ করে দেওয়ার দাবি তুলে। বার্ষিক চার লাখ টন কপার উৎপাদনে সক্ষম কারখানাটি বিক্ষোভের কারণে ৫০ দিনেরও বেশি সময় ধরে বন্ধ রয়েছে। স্থানীয় দূষণ নিয়ন্ত্রক দফতর পরিবেশ নীতিমালা না মানায় আগামী ছয় জুন পর্যন্ত কারখানাটি বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছে।

Sunday, May 20

ব্যাংক এর সুদের হারের ঊর্ধ্বগতি, থামাবে কে??



বিগত ছয় মাসে বাণিজ্যিক ব্যাংক এর সুদের হার বৃদ্ধিতে বিপাকে পড়েছে সধারণ মানুষ। ছয় মাস আগেও যা ছিলো ৮% তা এখন বেড়ে হয়েছে ১২%। ছয় মাসের মাথায় ৫% সুদের হার বৃদ্ধি অস্বাভাবিক এবং যা  দেশের জন্য ক্ষতিকর।



বাণিজ্যিক ব্যাংক এর কর্তা ব্যাক্তিরা সরকার কে সঞ্চয় এর সুদের হার ১১.৫% থেকে কম করার প্রস্তাব দিয়েছে, যা বাস্তবতা  বিরোধী   এবং যা মানলে  ভবিষ্যতে  এই তারল্য সংকট কে আর প্রকপ করবে।
সঞ্চয় এর আয় না থাকলে মানুষ  সঞ্চয় বিমুখ হবে ।

 বাংলাদেশ এর জি ডি পির প্রবৃদ্ধি হার ৭.৬%, সরকারের ঋণ জি ডি পির ৩১.৯%, বৈদেশিক মুদ্রার  রিজার্ভ ৩৩ বিলিয়ন ডলার, ঋণ সর্বমোট ২৮ বিলিয়ন ডলার, আপাতত দৃষ্টিতে বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ ঠিক থাকলেয় আমদানি রপ্তানি থেকে ১০ বিলিয়ন ডলার বেশি।

 বাংলাদেশ ব্যাংক গত মাসে বানিজ্যিক ব্যাংক এর ক্যাশ রিজার্ভ ১% কমিয়ে ৫.৫% নিয়ে আসে। এতে বাজারে ১০ হাজার কোটি টাকার তারল্য আসলেও চাহিদা ৭৭ হাজার কোটি টাকা।

বিগত বছর গুলোতে বাণিজ্যিক ব্যাংক গুলোর প্রতিদ্বন্দ্বিতা  মূলক ঋণ দেয়ার প্রতিযোগিতা  সুদের হার কমানোর পিছনে অন্যতম কারন।


সর্বোপরি শেয়ার বাজারের নিম্নগতি, বাণিজ্যিক ব্যাংক এর তারল্য সংকট এর পিছনে বৈশ্বিক  অর্থনীতিক কোন প্রভাব না থাকলেয়, জাতীয় কিছু বৃহৎ উন্নয়ন প্রকল্পের প্রভাব রয়েছে।

পাদ্মা সেতু, রুপপুর পাওয়ার প্রোজেক্ট ও অনান্য উন্নয়ন প্রকল্পের কারনে  আমদানি ও ঋণ বাড়লেও দেশের সার্বিক অর্থনীতিক  কাঠামোর ধারাবাহিকতা ঠিক রয়েছে ।


বাংলাদেশ-এর অর্থনীতি
Bdeconomy.jpg
অবস্থান১৬৬
মুদ্রাবাংলাদেশী টাকা (BDT)
অর্থবছর১লা জুলাই - ৩০শে জুন
বাণিজ্যিক সংস্থাWTO, SAFTA, D8, WCO
পরিসংখ্যান
জিডিপি$২৮৫.৫৬ বিলিয়ন (২০১৭ খ্রিস্টাব্দের প্রাক্কলন)
জিডিপি প্রবৃদ্ধি৭.৬৫% (২০১৮ সালের প্রাক্কলন)
মাথাপিছু জিডিপি$ ১৭৫৪(২০১৮সালের প্রাক্কলন)
ক্ষেত্র অনুযায়ী জিডিপিকৃষি (১৪%), শিল্প (৩২.৭%), সেবা (৫৩.৭%) (২০০৭ সালের প্রাক্কলন)
মুদ্রাস্ফীতি৫.২% (২০১০-১১ খ্রিস্টাব্দের প্রাক্কলন)
দারিদ্র সীমারনিচে অবস্থিত জনসংখ্যা১২.৯ (২০১৬ খ্রিস্টাব্দের প্রাক্কলন)
শ্রমশক্তি
৮ কোটি ১৫ লক্ষ (২০১৭
সালের প্রাক্কলন)
পেশা অনুযায়ী শ্রমকৃষি (৬৫%), শিল্প (২৫%), সেবা (১০%) (২০০৫ সালের প্রাক্কলন)
বেকারত্বের হার২.৪% (২০০৮)
প্রধান শিল্পপাট উৎপাদন, সুতির টেক্সটাইল, গার্মেন্টস, চা প্রক্রিয়াকরণ, নিউজপ্রিন্ট কাগজ, চিনি, হালকা প্রকৌশল, রাসায়নিক দ্রব্য, সিমেন্ট, সার, খাদ্য প্রক্রিয়াকরণ, লোহা, ইস্পাত
বৈদেশিক বাণিজ্য
রপ্তানি$৩৭.১১ বিলিয়ন (২০১৭ সালের প্রাক্কলন)
রপ্তানি পণ্যগার্মেন্টস, পাট ও পাটজাত দ্রব্য, চামড়া, হিমায়িত মাছ এবং সামুদ্রিক খাদ্য
প্রধান রপ্তানি অংশীদার
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ৩১.৮%, জার্মানি ১০.৯%, যুক্তরাজ্য ৭.৯%, ফ্রান্স ৫.২%, নেদারল্যান্ডস ৫.২%,
ইতালি ৪.৪২% (২০০০)
আমদানি$৩৮.৫ বিলিয়ন (২০১৭)
আমদানি পণ্যভারী যন্ত্রপাতি ও সরঞ্জাম, রাসায়নিক দ্রব্য, লোহা ও ইস্পাত, তুলা, খাদ্য, অপরিশোধিত তেল, পেট্রোলিয়াম দ্রব্য
প্রধান আমদানি অংশীদারভারত ১০.৫%, ইউরোপীয় ইউনিয়ন ৯.৫%, জাপান ৯.৫%, সিঙ্গাপুর ৮.৫%,গণচীন ৭.৪% (২০০৪)
মোট বৈদেশিক ঋণ$২১.২৩ বিলিয়ন (৩১শে ডিসেম্বর, ২০০৭)
সরকারি অর্থসংস্থান
সরকারি ঋণ$১.২ বিলিয়ন (২০০৫ খ্রিস্টাব্দের প্রাক্কলন)
আয়$৩৫ বিলিয়ন (২০১৭ খ্রিস্টাব্দের প্রাক্কলন)
ব্যয়$৯ বিলিয়ন (২০০৭ সালের প্রাক্কলন)
অর্থনৈতিক সাহায্য$১.৫৭৫ বিলিয়ন (২০০০ খ্রিস্টাব্দের প্রাক্কলন)
মূল উপাত্ত সূত্র: সিআইএ ওয়ার্ল্ড ফ্যাক্টবুক
মুদ্রা অনুল্লেখিত থাকলে তা মার্কিন ডলার এককে রয়েছে বলে ধরে নিতে হবে।




আফগানিস্তানের বিপক্ষে বাংলাদেশের টি-টোয়েন্টি দল ঘোষণা


তিন ম্যাচ সিরিজের টি-টোয়েন্টি খেলতে ২৯ মে ভারতের উদ্দেশে দেশ ছাড়বে টাইগাররা। সিরিজের সূচি অনুযায়ী ৩, ৫ ও ৭ জুন ভারতের দেরাদুনের রাজীব গান্ধী আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ম্যাচ তিনটিতে টাইগাররা আফগানদের মোকাবিলা করবে।

এই টি-টোয়েন্টি সিরিজকে সামনে রেখে সাকিব আল হাসান কে অধিনায়ক করে আজ ১৫ সদস্যের চূড়ান্ত স্কোয়াড ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।


বাংলাদেশ দলের ১৫ সদস্য হলেন-

সাকিব আল হাসান (অধিনায়ক), তামিম ইকবাল, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, সাব্বির রহমান, লিটন দাশ, সৌম্য সরকার, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, মেহেদি হাসান মিরাজ, মুস্তাফিজুর রহমান, রুবেল হোসেন, নাজমুল ইসলাম অপু, আবু হায়দার রনি, আবু যায়েদ রাহি ও আরিফুল হক।

Saturday, May 19

রাশিয়ায় সমুদ্রে ১৮.১ কিলোমিটার দীর্ঘ সেতু



২০১৪ সালে ইউক্রেন এর কাছ থেকে রাশিয়া ক্রিমিয়া নামের একটি দ্বিপ দখল করে নেয় ।  ক্রিমিয়ায় রাশিয়ান ভাষার মানুই বেশি থাকায় ইউক্রেন রাশিয়ান ভাষা ভাষীদের উপর জুলুম
 করছে এই উসিলায় কৃষ্ণ সাগরের এই দ্বিপ নিজের কবজায় নেন পুতিন ।  রাশিয়া  থেকে এর কোন সরাসরি যোগাযোগ নেই বলে পুতিন ক্রিমিয়াকে ব্রিজ দিয়ে সংযুক্ত করার আশ্বাস দেন ক্রিমিয়াবাসিকে । সেই আশ্বাস ২০১৮ সালের মে মাসে পুরন করলেন পুতিন ।

রাশিয়া হচ্ছে বিশ্বের অন্যতম প্রভাবশালী দেশ, আর এই রাশিয়ার রাষ্ট্রপ্রধান হচ্ছেন ভ্লাদিমির পুতিন। তিনি বিগত মঙ্গলবার নিজে ট্রাক চালিয়ে ইউরোপের দীর্ঘতম ক্রিমিয়া উপদ্বীপের সংযোগ সেতুটির উদ্বোধন করেছেন।

 নির্মাণে ৩ দশমিক ৬৯ বিলিয়ন মার্কিন ডলার খরচ হয়েছে। ক্রেমলিন বলছে, ২০১৮ সালের শেষ দিকে সেতুর ওপর দিয়ে রাস্তাটির কাজ শতভাগ শেষ হবে। যদিও আগামী বুধবার থেকেই যান চলাচলে জন্য সেতুটি খুলে দেওয়া হবে। অন্যদিকে সেতুটির রেলপথের পুরো কাজ শেষ হবে ২০১৯ সালে।

Kerch Strait Bridge, 2018-04-14.jpg





সেতুটি উদ্বোধনের মধ্য দিয়ে রাশিয়ার দক্ষিণে ক্রাসনদার অঞ্চলের সঙ্গে ক্রিমিয়ার কেরচ নগরীর সরাসরি যোগাযোগ স্থাপিত হয়েছে। সেতুটির ফলে ক্রিমিয়ার সমুদ্র পথে পরিবহন নির্ভরতা অনেকটাই কমবে বলে আশা করা হচ্ছে। ১৯ কিলোমিটার দীর্ঘ সেতুটি উদ্বোধনের ফলে পর্তুগালের ‘ভাস্কো দ্য গামা’ ব্রিজকে পিছনে ফেলে এটিই এখন ইউরোপের সবচেয়ে দীর্ঘ সেতু।

সেতুটিতে রেলপথও রয়েছে।

রাশিয়ার এই সেতু নির্মাণে অবশ্য তীব্র বিরোধীতা করে আসছে প্রতিবেশী ইউক্রেন। তারা বলছে, সেতুটির নির্মাণ কাজ সমুদ্রের প্রকৃতিক পরিবেশ নষ্ট করেছে। পাশাপাশি সেতুটির কারণে বড় সাইজের জাহাজ 'আজভ সি' ইউক্রেনের বন্দরগুলোতে নোঙর ফেলতে পারবে না।


সারাদেশে র‌্যাবের মাদকবিরোধী অভিযানঃ ক্রসফায়ারে নিহত সকলেই মাদক ব্যাবসায়ী





সারাদেশ জুড়ে শুরু হয়েছে র‌্যাবের মাদকবিরোধী সাঁড়াশি অভিযান। এই অভিযান শুরুর পর বিগত ১৫ মে থেকে ১৯ মে পর্যন্ত ৪ দিনে বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছেন নয় জন। নিহত সকলকেই শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী বলে জানা গেছে । শনিবার র‌্যাব সদর দফতর থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ দাবি করা হয়।


বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, গত ১৫ মে র‌্যাবের ব্যাটালিয়ন ১১ এর সঙ্গে বন্দুকযু্দ্ধে নারায়ণগঞ্জের রিপন নিহত হয়। একই দিন র‌্যাব ১২ এর সঙ্গে কুষ্টিয়ায় নিহত হয় হামিদুল ইসলাম।

ওই ঘটনার একদিন পর ১৭ মে র‌্যাব ৫-র সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয় রাজশাহীর আবুল হাসান ওরফে হাসান। একই ব্যাটালিয়নের সঙ্গে ১৮ মে চাপাইনবাবগঞ্জে বন্দুকযুদ্ধে মারা যান আবদুল আলিম। নিহতরা সবাই শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী।

এছাড়া ১৮ মে চট্টগ্রামে র‌্যাব-৭ এর সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে হাবিবুর রহমান প্রকাশ ওরফে মোটা হাবিব ও মো. মোশাররফ নামে দুজন নিহত হন। তাদের বিরুদ্ধেও একাধিক মামলা রয়েছে বলে জানায় র‌্যাব।

পরদিন ১৯ মে র‌্যাব-৬ এর সঙ্গে যশোরের অভয়নগরে বন্দুকযুদ্ধে তিনজন নিহত হন। তারা হলেন- আবুল কালাম, হাবিব শেখ ও মিলন কাশারী। এরাও শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী বলে দাবি করে বাহিনীটি।


এই বিষয় নিয়ে শনিবার দুপুরে এ নিয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল।

বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদের দুই দিনের সম্মেলনে সমাপনী অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নে তিনি বলেন, ‘গোয়েন্দাদের তথ্যের ভিত্তিতেই বিভিন্ন জায়গা থেকে মাদক বিক্রেতা ও দুর্বৃত্তদের প্রতিহত করা হচ্ছে। যারা প্রতিরোধ গড়ে তোলে তাদের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধ হয়ে থাকে। যেমন র‌্যাবের সঙ্গে ঘটেছে।’

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আরও বলেন, এমন ঘটনায় একজন ম্যাজিস্ট্রেট তদন্ত করে থাকেন। এগুলোর বিষয়ে তদন্ত চলছে। বিনাবিচারে কিছু হলে দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। কোনো হত্যাকাণ্ড গোপন থাকবে না, সবগুলোরই বিচার হবে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর এমন মন্তব্যের পর শনিবার রাতে পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে র‌্যাব দাবি করে, নিহত সবাই শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী। বাহিনীটি জানায়, গত ৪ মে থেকে ১৯ মে পর্যন্ত সারাদেশে র‌্যাবের হাতে ২ হাজার ২৮৭ জন গ্রেফতার হয়েছে।

এর মধ্যে ২৯৯টি মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে ১ হাজার ৯২২ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে ভ্রাম্যমাণ আদালত কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে। আর ৪৩০ জনকে ২৭ লাখ টাকার বেশি অর্থদণ্ড করা হয়েছে। র‌্যাবের ৪৮৫টি অভিযানে প্রায় ২০ কোটি টাকার মাদকদ্রব্য জব্দ করা হয়েছে।










রাজধানীতে নকল আইফোন তৈরির কারখানার সন্ধান


ঢাকার মহাখালীর একটি বাসায় নকল আইফোন তৈরির কারখানার সন্ধান পাওয়া গেছে। শুল্ক গোয়েন্দারা গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শনিবার দুপুরে সেখানে অভিযান চালিয়ে ৩৬টি আইফোন জব্দ করে এবং সেখান থেকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৭ জনকে আটক করে শুল্ক গোয়েন্দা কার্যালয়ে নিয়ে যাওয়া হয়।

শুল্ক গোয়েন্দা বিভাগ জানিয়েছে নিউ ডিওএইচএসের ২৭ নম্বর রোডের ৩৫৬ নম্বর বাসায় ‘টি জে ইলেকট্রনিক লিমিটেড’ নামের নকল ফোন তৈরির প্রতিষ্ঠানটি থেকে ৩৬টি আইফোন জব্দ করা হয়েছে। এ ছাড়া বিপুল পরিমাণ যন্ত্রাংশও সেখান থেকে উদ্ধার করা হয়েছে।

শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদফতরের উপ-পরিচালক পায়েল পাশা বলেন, ‘আমাদের কাছে গোপন তথ্য ছিল এখানে শুল্ক ফাঁকি দিয়ে আইফোন এনে বিক্রি করা হয়। কিন্তু এসে দেখলাম বিভিন্ন যন্ত্রাংশ সংযোজনের মাধ্যমে নকল আইফোন তৈরি হয়।’



৩৬টি আসল আইফোন পাওয়া গেছে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘তবে এগুলোর আমদানির কোনো বৈধ কাগজপত্র তারা দেখাতে পারেননি। অভিযানকালে কিছু এইচটিসি ও এলজি হ্যান্ডসেট উদ্ধার করা হয়েছে। এছাড়া কয়েকশ’ আইফোনের খালি বাক্স পাওয়া গেছে। ধারণা করা হচ্ছ, এই মোড়কেই নকল আইফোন বিক্রি করা হত। এভাবে নকল আইফোন তৈরির মাধ্যমে একদিকে গ্রাহকের সঙ্গে প্রতারণা করা হচ্ছে, আবার অন্যদিকে সরকারের বিপুল পরিমাণ রাজস্ব ফাঁকি দেয়া হচ্ছে। তিনি আরও জানান, একই সঙ্গে নকল আইফোন তৈরির যন্ত্রাংশ হিসেবে ব্যাটারি, র‌্যাম, মাদার বোর্ড জব্দ করে নিয়ে গেছেন শুল্ক গোয়েন্দা কর্মকর্তারা।


এদিকে আটক কর্মচারীরা দাবি করেছেন, তারা নকল আইফোন তৈরি করেন না। অনলাইনের মাধ্যমে সার্ভিসিংয়ের জন্য আইফোন সংগ্রহ করা হয়। পরে সেগুলো আবার গ্রাহকদের কাছে পৌঁছে দেয়া হয়।

র‌্যাবের সহযোগিতায় শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদফতরের নেতৃত্বে এ অভিযান বেলা ১১টায় শুরু হয়, শেষ হয় দুপুর ২টায়।





ওজন কমাতে সঠিক ভাবে হাঁটার উপায়





সঠিক ভাবে না হাঁটলে সেই হাঁটার কোনও প্রতিফলনই ঘটে না শরীরের উপরে! সাঁতারের মতো হাঁটাতেও সমগ্র শরীরে প্রভাব পড়ে। কিন্তু, তার জন্য ঠিক মতো হাঁটা অত্যন্ত জরুরি। যেমন—


১। হাঁটার জন্য সঠিক জুতো অবশ্যই পরা উচিত। সঙ্গে পোশাকও।

২। ছোট ছোট পদক্ষেপ করতে হবে। এবং হাঁটতে হবে দ্রুত বেগে। অযথা, লম্বা লম্বা স্টেপ নিয়ে হাঁটতে গেলে খুব তাড়াতাড়ি হাঁপিয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

৩। পা ফেলার সময় খেয়াল রাখতে হবে যে, প্রথমে গোড়ালি তার পরে পায়ের পাতা, এভাবে যেন পা মাটিতে পড়ে। পায়ের পাতা সোজা হয়ে মাটিতে পড়া মানে বুঝতে হবে আপনার পায়ে কোনও সমস্যা রয়েছে।

৪। শারীরিক কসরতের জন্য হাঁটার সময় খেয়াল রাখতে হবে, হাঁটার তালের সঙ্গে যেন দুই হাতও সমান ভাবে নড়ে। অর্থাৎ, বাঁ পা আগে হলে সঙ্গে ডান হাতও আগে যেতে হবে।


Tuesday, May 15

বাংলাদেশের আকাশসীমায় মুখোমুখি সংঘর্ষ থেকে রক্ষা পেয়েছে ভারতের দুইটি বিমান


ঢাকার আকাশে কলকাতা থেকে আগরতলাগামী ইন্ডিগোর ফ্লাইট ৬ই৮৯২  এবং এয়ার ডেকানের ফ্লাইট ডিএন ৬০২ এর মধ্যে সংঘর্ষের এই শঙ্কা তৈরি হয়।গত ২ মে এই ঘটনা ঘটলেও শুক্রবার তা প্রকাশ করা হয়।

ভারতীয় বিমান সংস্থা ইন্ডিগো ও এয়ার ডেকানের দুটি বিমান মাঝ আকাশে একেবারে কাছাকাছি চলে এলেও স্বয়ংক্রিয় সতর্কবার্তা পাওয়ার পর কৌশলে দুই বিমানের পাইলট তা এড়িয়ে নিরাপদ অবস্থানে যেতে সক্ষম হন।

ভারতীয় সরকারি সংবাদ সংস্থা প্রেস ট্রাস্ট অব ইন্ডিয়া (পিটিআই) বলছে, গত ২ মে বাংলাদেশের আকাশসীমায় এ দুর্ঘটনা ঘটার সম্ভাবনা তৈরি হয়েছিল। ওইদিন কলকাতা থেuকে আগরতলাগামী ইন্ডিগোর ফ্লাইট ৬ই৮৯২ ও এয়ার ডেকানের ফ্লাইট ডিএন ৬০২ এর সংঘর্ষের শঙ্কা তৈরি হয়।

ওইদিন এ দুটি ফ্লাইটের মুখোমুখি দূরত্ব মাত্র ৭০০ মিটারে চলে আসে। এ ঘটনায় তদন্তের পর ভারতের বিমান তদন্ত সংস্থা বিমান দুর্ঘটনা তদন্ত ব্যুরো (এএআইবি) ‘ভয়ানক’ বলে মন্তব্য করেছে।

নাটক পরিচালনায় হুমায়ূন আহমেদের ছেলে নুহাশ




বাংলাদেশের নন্দিত কথা সাহিত্যিক প্রয়াত হুমায়ূন আহমেদের সুযোগ্য পুত্র নুহাশ হুমায়ূন এবারের ঈদে একটি নাটক পরিচালনা করছেন। নাটকটির নাম রাখা হয়েছে ‘হোটেল অ্যালবেট্রস’। নুহাশ হুমায়ূন পরিচালিত এই নাটকে অভিনয় করেছেন স্বয়ং সংস্কৃতি মন্ত্রী ও অভিনেতা আসাদুজ্জামান নূর।




বেসরকারি টেলিভিশন ৭১ চ্যানেলের একটি ভিডিও রিপোর্ট থেকে এই তথ্য জানা যায়।


https://www.facebook.com/ekattor.tv/videos/1645684712170817/




জেরুজালেমে দূতাবাস স্থানান্তর করেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র



গত সোমবার ইসরায়েলের ৭০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর দিনে জেরুজালেমে নতুন দূতাবাস চালু করছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। ওয়াশিংটনের এ পদক্ষেপে ইসরায়েল খুশি হলেও উদ্বেগের মধ্যে পড়েছেন ফিলিস্তিনিরা।

কয়েক দশকের মার্কিন নীতি লঙ্ঘন করে গত বছর দেশটির প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দেন। তার ওই ঘোষণার পর জেরুজালেমে মার্কিন দূতাবাস চালুর এ ব্যবস্থা নেয়া হয়।



ট্রাম্প বলেছেন, তার প্রশাসনের শান্তি প্রস্তাবনা কাজ করছে এবং জেরুজালেমকে আমেরিকার অন্যতম ঘনিষ্ঠ মিত্র দেশের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দেয়ার সিদ্ধান্ত শান্তি আলোচনার কঠিন অংশ।

মার্কিন প্রেসিডেন্টের এ ঘোষণায় ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহু স্বাগত জানালেও আরব বিশ্ব ও মার্কিন পশ্চিমা মিত্রদের মধ্যে বিরক্তি তৈরি করে।

ফিলিস্তিনের প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাস বলেছেন, ট্রাম্পের ওই ঘোষণা ফিলিস্তিনিদের গালে থাপ্পড়। ইসরায়েলের সঙ্গে শান্তি আলোচনায় ওয়াশিংটন কোনো ধরনের মধ্যস্থতাকারীর ভূমিকা পালন করতে পারে না বলেও সতর্ক করে দিয়েছেন তিনি।

দক্ষিণ জেরুজালেমের একটি ভবনে ছোট পরিসরে দূতাবাসের কার্যক্রম পরিচালনা করা শুরু হয়েছে। পরে নিরাপদ স্থানের খোঁজ পাওয়া গেলে তেলআবিব থেকে পুরো দূতাবাস সেখানে স্থানান্তর করা হবে।

কোটার প্রজ্ঞাপন জারির দাবিতে ৬ ঘন্টা সড়ক অবরোধ





রাজধানীর শাহবাগ মোড় দীর্ঘ ছয় ঘন্টা অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছে আন্দোলনকারীরা। জাতীয় সংসদে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দেওয়া কোটা বাতিল বিষয়ক ঘোষণার প্রজ্ঞাপন প্রকাশের দাবিতে তারা এই অবরোধ করে।

এসময় তারা শাহবাগ মোড় অবরোধ করেন। এতে শাহবাগ হতে ফার্মগেট-মতিঝিল-সাইন্সল্যাব-ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। অসহনীয় ভোগান্তিতে পড়ে বিভিন্ন গন্তব্যের উদ্দেশ্য রওনা হওয়া যাত্রীরা। আন্দোলনকারীরা কোটা বাতিলের বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা প্রজ্ঞাপন আকারে প্রকাশ হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চালিয়ে যাবার ঘোষণা দেন।

সোমবার দুপুর ১টা হতে সন্ধা ৭টা পর্যন্ত সহস্রাধিক ছাত্রছাত্রী বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের ব্যানারে এই অবরোধ করে এবং সন্ধা ৭টার সময় প্রজ্ঞাপন জারি না হওয়া পর্যন্ত দেশের সকল কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ে ক্লাস পরীক্ষা বর্জন কর্মসূচি অব্যাহত রাখার ঘোষণা দিয়ে কর্মসূচি শেষ করে।

এর আগে আন্দোলনকারীরা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে কয়েকবার মিছিল নিয়ে প্রদক্ষিণ করেন। মিছিলটি বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস প্রদক্ষিণ করে টিএসসি, শহীদ মিনার, দোয়েল চত্ত্বর, কার্জন হল এলাকায় যায়। পরে সেখান থেকে হাইকোর্ট মোড়, কদম ফোয়ারা, মৎস্য ভবন, ইঞ্জিনিয়ারিং ইনস্টিটিউট পার হয়ে বেলা ১টার দিকে শাহবাগ মোড়ে এসে অবস্থান নেয় আন্দোলনকারীরা।

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে যানজট চরম, ফেনী পৌঁছাতে সময় লাগে ১৫-১৭ ঘন্ট





বিগত কয়েক দিনে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে যানজট চরম আকার ধারণ করেছে। শুধুমাত্র ফেনী পৌঁছাতে বর্তমানে সময় লাগছে প্রায় ১৫-১৭ ঘণ্টারও বেশি।

ফেনীর ফতেহপুর রেলক্রসিং এলাকায় রেল ওভারপাস নির্মাণকাজ চলায় মহাসড়কের চার লেনের গাড়িগুলো চলতে হচ্ছে এক লেনে। যে কারণে মহাসড়কে উভয়মুখী স্বাভাবিক যান চলাচল ব্যাহত হচ্ছে। এই মহাসড়কে দীর্ঘ ১০০ কিলোমিটার রাস্তায় যানজটে তৈরি হয়েছে জনদুর্ভোগ।





যানজট এড়াতে কুমিল্লা দিয়ে লাকসাম-সোনাইমুড়ি-চৌমুহনী হয়ে মাঝেমাঝে কিছু যান চলাচল করলেও সেই সড়কেও যানজট ছড়িয়ে পড়েছে।

ফেনী জেলা ট্রাফিক ইন্সপেক্টর মীর গোলাম ফারুক বলেন, ভয়াবহ এ যানজট পরিস্থিতি সামাল দিতে ট্রাফিক ও হাইওয়ে পুলিশ সদস্যরা রীতিমত হিমশিম খাচ্ছেন। পুলিশ সারাক্ষণ রাস্তায় টহল দিচ্ছে।



চালক ও যাত্রীরা জানান, জ্যামে বসে থাকতে থাকতে সবাই অসুস্থ হয়ে যাচ্ছে। মালবাহী যান সময়মতো গন্তব্যে না পৌঁছানোয় নষ্ট হচ্ছে ভোগ্য পণ্য।



কান চলচ্চিত্র উৎসবে প্রথমবারের মতো অংশ নিবে সৌদি আরব





বিশ্বে চলচ্চিত্র জগতের অন্যতম জমজমাট আসর হিসাবে মানা হয় কান চলচ্চিত্র উৎসবকে। প্রতি বছর এতে অংশগ্রহণ করে থাকে  বিশ্বের নানা প্রান্তের তারকা অভিনয়শিল্পী ও নির্মাতারা।

 আর চলতি বছরের ৮-১৯ মে ফ্রান্সের দক্ষিণ সমুদ্র তীরবর্তী শহর কানে বসতে যাচ্ছে এই উৎসবের ৭১তম আসর। আর এবার প্রথমবারের মত এতে অংশ নিবে সৌদি আরব।


সৌদি আরবের সংস্কৃতিমন্ত্রী এবং জেনারেল কালচার অথরিটির (জিসিএ) চেয়ারম্যান আওয়াদ আলাওয়াদ এক বিবৃতিতে বলেছেন, সৌদি ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির প্রতিভা ও বৈচিত্রতা তুলে ধরতে এ উৎসবে অভিষেকের অপেক্ষায় সৌদি আরব।



তিনি আরো বলেছেন, একটি উন্নত ও টেকসই ইন্ডাস্ট্রি গড়ার লক্ষ্যে চলচ্চিত্রের প্রতিটি ক্ষেত্রে সহযোগিতা ও উৎসাহ দান করছে। পাশাপাশি বিশ্বের নির্মাতাদের সামনে মেলে ধরছে নৈসর্গিক সব স্থান, যা তারা ব্যবহার করতে পারবে।



৩৫ বছরের বেশি সময় ধরে সৌদি আরবের রাজধানী রিয়াদসহ বিভিন্ন শহরের সিনেমা হলগুলো নিষেধাজ্ঞার কারণে বন্ধ ছিল। সম্প্রতি সিনেমা প্রদর্শনের নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয় দেশটি।

আশা করা হচ্ছে এ উৎসবে দেশটির নবীন নির্মাতাদের মোট নয়টি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র প্রদর্শিত হবে।




বিশ্বের সবচেয়ে বড় লেহেঙ্গা শাড়ি গায়ে দিয়ে রেকর্ড গড়লেন অভিনেত্রী জয়া আহসান



অভিনেত্রী জয়া আহসানের গায়ে ৪০০ ফুটের লেহেঙ্গা শাড়ি।  শাড়িটির আরেকটি বিশেষত্ব হলো, পুরো শাড়িতে কোনো জোড়া নেই। জানা গেছে, গিনেস বুকে স্থান পাওয়ার জন্য শাড়িটি তৈরি করেছে প্রেম’স কালেকশন। গতকাল রোববার সন্ধ্যায় গুলশান-১ নম্বরে এই প্রতিষ্ঠানের শো রুমে প্রদর্শন করা হয় শাড়িটি।



প্রেম’স কালেকশনের মতে, জয়া আহসান যে শাড়িটি প্রদর্শন করেছেন, এটির দৈর্ঘ্য ৪০০ ফুট। এত লম্বা আর কোনো জোড়া ছাড়া লেহেঙ্গা শাড়ি এর আগে তৈরি হয়নি। বিশ্বের সবচেয়ে বড় লেহেঙ্গা শাড়ির রেকর্ড গড়ার জন্য এই উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। গতকাল এই আয়োজন উদ্বোধন করেন বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতের হাইকমিশনার হর্ষ বর্ধন শ্রিংলা।



গতকাল এক জাতীয় দৈনিক পত্রিকাকে জয়া আহসান বলেন,  ‘যতটুকু জেনেছি, ৪০০ ফুট দৈর্ঘ্যের কোনো লেহেঙ্গা শাড়ি এর আগে তৈরি হয়নি। গিনেস বুকে স্থান পাওয়ার জন্য এমন উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। আর প্রতিষ্ঠানটির কর্তৃপক্ষ শাড়িটি প্রথম প্রদর্শনের জন্য আমাকে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। এটা আমার জন্য খুবই গর্বের। আশা করছি, শাড়িটি রেকর্ড গড়তে পারবে।’

জয়া আহসান আরও বলেন, ‘পুরো শাড়ি পরা মোটেও সম্ভব না। আমার পেছনে ২০ জন মডেল শাড়ির বাড়তি অংশ বহন করেছেন। এই শাড়ির সঙ্গে আরেকটি ড্রেসও ছিল।’

Saturday, May 12

সোনাম কাপুরের ধামাকা বিয়ে । ছবি ও ভিডিও







এই মুহূর্তে বলিউডজুড়ে তারকারা মেতে আছেন একটি বিষয় নিয়েই। আর তা হলো নায়িকা সোনম কাপুরের বিয়ে। অনিল কাপুরের মেয়ের বিয়েতে সপ্তাহব্যাপী অনুষ্ঠানে মেতে উঠেছে পুরো বলিউড।

Image result for sonam kapoor wedding

 শিখ রীতি নীতি মেনে গুরুদ্বারায় দিল্লিবাসী আনন্দ আহুজার সঙ্গে সাত পাকে বাঁধা পড়লেন অনিল কন্যা সোনাম কাপুর। লাল লেহেঙ্গা পরে, হাতে চুড়া ঝুলিয়ে সোনাম যখন বিয়ের জন্য মণ্ডপে হাজির হন, তখন একের পর এক ক্যামেরার ফ্ল্যাশ ঝলসে ওঠে।



 সোনামের পাশাপাশি আনন্দ আহুজাকেও লাগছিল বেশ। সেই সঙ্গে সোনামের বিয়েতে হাজির হন বলিউডের অনেক সেলিব্রিটি। অমিতাভ বচ্চন থেকে শুরু করে শ্বেতা বচ্চন, জ্যাকলিন ফার্নান্ডেজ, করিনা কাপুর খান, সাইফ আলি খান, শ্বেতা বচ্চনরা হাজির হন অনিল কন্যার মেয়ের বিয়েতে।

Image result for sonam kapoor  hot Related image
সেই সঙ্গে হাজির হন বনি কাপুর, অর্জুন কাপুর, জাহ্নবী কাপুর, অংশুলা কাপুর প্রত্যেকে। কিন্তু, শেষ মুহূর্তে যখন বিয়ের জন্য আনন্দের মুখোমুখি হন সোনাম কাপুর, সেই সময়ও ঝলসে ওঠে ক্যামেরার ফ্ল্যাশ।
Image result for sonam kapoor wedding


মহাকাশে স্যাটেলাইটের সংখ্যা ৪ হাজার এর অধিক, আসুন জেনে নেই এদের মালিক কারা





জাতিসংঘের মহাকাশবিষয়ক সংস্থা ইউনাইটেড নেশনস অফিস ফর আউটার স্পেস অ্যাফেয়ার্সের (ইউএনওওএসএ) হিসাবে, ২০১৭ সাল পর্যন্ত মহাকাশে স্যাটেলাইটের সংখ্যা ৪ হাজার ৬৩৫। প্রতিবছরই স্যাটেলাইটের এ সংখ্যা ৮ থেকে ১০ শতাংশ হারে বাড়ছে।

স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ ও এর গতিবিধি নিয়ে কাজ করে এন২ওয়াইও.কম ওয়েবসাইটের তথ্য মতে, সাবেক সোভিয়েত রাশিয়া ভুক্ত দেশগুলোর (কমনওয়েলথ অব ইন্ডিপেন্ডেন্ট স্টেটস) সম্মিলিত স্যাটেলাইট সংখ্যা ১৫০৪টি, যুক্তরাষ্ট্রের ১৬১৬টি, চীনের ২৯৮টি, জাপানের ১৭২টি, ফ্রান্সের ৬৮টি (জার্মানির সঙ্গে যৌথভাবে ১টি), ভারতের ৮৮টি, জার্মানির ৫২টি, কানাডার ৪৮টি, যুক্তরাজ্যের ৪২টি, ইতালির ২৭টি, দক্ষিণ কোরিয়ার ২৪টি, স্পেনের ২৩টি, অস্ট্রেলিয়ার ২১টি, আর্জেন্টিনার ১৮টি, ইসরাইলের ১৭টি, ব্রাজিলের ১৭টি (যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে যৌথভাবে ১টি এবং চীনের সঙ্গে যৌথভাবে ৩টি), ইন্দোনেশিয়ার ১৬টি, তুরস্কের ১৪টি, সৌদি আরবের ১৩টি, মেক্সিকোর ১২টি, সুইডেনের ১২টি,  সিঙ্গাপুরের ৯টি, ডেনমার্কের ৯টি, তাওয়ানের ৯টি, সংযুক্ত আরব আমিরাতের ৯টি, থাইল্যান্ডের ৯টি, নরওয়ের ৮টি, মালয়েশিয়ার ৬টি, কাজাখস্তানের ৬টি, আলজেরিয়ার ৬টি, নাইজেরিয়ার ৬টি, দক্ষিণ আফ্রিকার ৬টি, নেদারল্যান্ডসের ৬টি, গ্রীসের ৪টি, লুক্সেমবার্গের ৪টি। পাকিস্তান, চিলি, ভেনিজুয়েলা, ভিয়েতনামের ৩টি করে; বেলারুশ ইকুয়েডর মিশর, চেক রিপাবলিক, উত্তর কোরিয়া ফিলিপিন্স, পোল্যান্ড এবং পর্তুগালের ২টি করে;
আজারবাইজান, বলিভিয়া, বুলগেরিয়া, এস্তোনিয়া, ইরাক, ইরান, লাটভিয়া, লাওস, লিথুনিয়া, মরক্কো, পেরু, স্লোভাকিয়া এবং উরুগুয়ের ১টি করে স্যাটেলাইট রয়েছে।




এছাড়া বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংস্থার অনেকগুলো স্যাটেলাইট বর্তমানে কক্ষপথে অবস্থান করছে। এগুলোর মধ্যে ইউরোপিয়ান অর্গানাইজেশন ফর দ্যা এক্সপ্লয়টেশন অব মেরিওরোলজিক্যাল স্যাটেলাইটসের ৮টি, গ্লোবারস্টারের ৮৪টি, ইউরোপিয়ান স্পেস এজেন্সির ৮২টি, ইউরোপিয়ান টেলিকমিউনিকেশনস স্যাটেলাইট অর্গানাইজেশনের ৫১টি, আরব স্যাটেলাইট কমিউনিকেশন অর্গানাইজেশনের ১৩টি, এশিয়া স্যাটেলাইট টেলিকমিউনিকেশনস কোম্পানির ৮টি, ইন্টারন্যাশনাল মোবাইল স্যাটেলাইট অর্গানাইজেশনের ১৭টি, ইন্টারন্যাশনাল স্পেস স্টেশনের ৭টি, নিউইকোর ১টি, ন্যাটোর ৮টি, ওথ্রিবি নেটওয়ার্কের ১৬টি, অর্বকমের ৪১টি স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ করেছে।



আর ৫৭তম দেশ হিসেবে মহাকাশে স্যাটেলাইট উৎক্ষেপনের গৌরব অর্জন করলো বাংলাদেশ।


পৃথিবীর মাত্র ১০টি দেশ নিজস্ব প্রযুক্তি ও উৎক্ষেপণ কেন্দ্র থেকে মহাকাশে কৃত্রিম উপগ্রহ পাঠাতে সক্ষম। এর মধ্যে রয়েছে রাশিয়া, যুক্তরাষ্ট্র, ফ্রান্স, জাপান, চীন, যুক্তরাজ্য, ভারত, ইসরাইল, ইউক্রেন এবং ইরান।

সুত্রঃ সময় নিউজ টিভি